দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে হারের পর কীভাবে টি-২০ বিশ্বকাপের সেমি ফাইনালে যেতে পারে ভারত?

87

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

প্রথম ২ ম্যাচ জয়ের পর তৃতীয় ম্যাচে হঠাৎই ছন্দপতন। টি-২০ বিশ্বকাপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে রবিবার দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৫ উইকেটে হেরে গেলেন রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলিরা। এই হার সুপার ১২ গ্রুপ ২-এর হিসেব জটিল করে দিল। গ্রুপের শীর্ষস্থান দখল করা নিয়ে প্রোটিয়াদের সঙ্গে লড়াইয়ে ছিল ভারত। ম্যাচের আগে পর্যন্ত রোহিতরাই গ্রুপের শীর্ষে ছিলেন। হেরে গিয়ে তাঁরা নেমে গেলেন ২ নম্বরে। ৩ ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে এখন গ্রুপের সেরা দক্ষিণ আফ্রিকা। ৩ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে ভারত। ৩ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট আছে বাংলাদেশেরও। তবে রান রেটে পিছিয়ে থাকায় তৃতীয় স্থানে শাকিব আল-হাসানরা। ২ নভেম্বর ভারতের পরের ম্যাচ বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। সেই ম্যাচটাই এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। বাংলাদেশের পর ৬ নভেম্বর জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে খেলবেন রোহিতরা। শেষ চারে জায়গা করে নিতে হলে দু’টি ম্যাচই জিততে হবে ভারতকে। ৮ পয়েন্ট পেয়ে গেলে সহজেই শেষ চারে চলে যাবে ভারত।

টি-২০ বিশ্বকাপে রবিবার জিম্বাবোয়েকে ৩ রানে হারিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশে। অন্য ম্যাচে নেদারল্যান্ডসকে ৬ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে পাকিস্তান। তবে এদিন জিতলেও, পাকিস্তানের সেমি ফাইনালে যাওয়ার আশা নেই বললেই চলে। বাবর আজমদের ম্যাচ বাকি দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশের সঙ্গে। তাঁরা সর্বোচ্চ পেতে পারে ৬ পয়েন্ট। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার শেষ ম্যাচ নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে। ডাচরা প্রোটিয়াদের হারাবে, এই আশা না করাই ভাল। বাংলাদেশের ম্যাচ বাকি ভারত ও পাকিস্তানের সঙ্গে। এই দুই ম্যাচের ফল গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। জিম্বাবোয়ের ম্যাচ বাকি নেদারল্যান্ডস ও ভারতের সঙ্গে। নেদারল্যান্ডসকে হারালে ৫ পয়েন্টে পৌঁছে যাবে জিম্বাবোয়ে। সেক্ষেত্রে ভারতের সঙ্গে তাদের ম্যাচ আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে। দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচ বাকি পাকিস্তান ও নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে। ফলে এই গ্রুপের শেষ কয়েকটি ম্যাচ উত্তেজক হতে চলেছে।

ভারতীয় দল আজ জিতে গেলে এই গ্রুপের অঙ্ক অবশ্য কম জটিল হত না। সেক্ষেত্রে পাকিস্তানেরও সেমি ফাইনালে যাওয়ার ভাল সুযোগ থাকত। বাংলাদেশ এদিন জিম্বাবোয়েকে হারিয়ে দেওয়ায় এবং নিজেরা জেতায় উল্লসিত হয়ে উঠেছিল পাক শিবির। তারা ভারতের জয় চাইছিল। কিন্তু ভারত হেরে গিয়ে পাকিস্তানের কাজটা প্রায় অসম্ভব করে দিল। এখন এই গ্রুপ থেকে শেষ চারে যাওয়ার লড়াই মূলত ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশের মধ্যে সীমাবদ্ধ।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.