প্রথম বিশ্বকাপের আসরে খেলেছিল মাত্র ১৩ দেশ

91

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

কাতারে বিশ্বকাপ শুরু হতে আর এক মাসও বাকি নেই। বহু লড়াইয়ের পর ৩২টি দেশ এই প্রতিযোগিতা খেলার সুযোগ পেয়েছেন। বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হতে প্রায় এক মাস ধরে লড়াই চালবে ৩২টি দলের মধ্য়ে। কিন্তু এক দিনে এই প্রতিযোগিতা বিশ্বের মধ্যে সবথেকে জনপ্রিয় হয়নি। বরং শুরু দিকেই এই প্রতিযোগিতা আয়োজন করতেই বেগ পেতে হয়েছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা ফিফাকে।  ফুটবল বিশ্বকাপের আসর প্রথম বার বসেছিল ১৯৩০ সালে। উরুগুয়েতে। ১৩টি দল অংশ নিয়েছিল সেই বিশ্বকাপে। খেলা হয়েছিল মোট ১৮টি ম্যাচ। হয়েছিল ৭০টি গোল। ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে চ্য়াম্পিয়ন হয়েছিল উরুগুয়ে।

 

প্রথম বিশ্বকাপে শুরু করতে গিয়ে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছিল ফিফাকে। ১৯০৪ সালে ফিফা গঠিত হয়। তার পর অনেক বার চেষ্টা করেও বিশ্বের সমস্ত প্রান্তের দেশ নিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলের আসর বসাতে পারেনি। আটলান্টিক মহাসাগর পেরিয়ে ইউরোপের অনেক দেশই লাতিন আমেরিকায় যেতে রাজি ছিল না। অর্থনৈতিক সমস্যাও ছিল। সব বাধা কাটিয়ে ১৯৩০ সালে উরুগুয়ে আয়োজিত হয় প্রথম বিশ্বকাপ। ১৩টি দেশের মধ্যে ৭টি দেশই ছিল আমেরিকা মহাদেশের। ইউরোপ থেকে অংশ নিয়েছিল ৭টি দেশ। প্রতিযোগিতা শুরুর দুমাস আগে যোগদানের ব্যাপারে নিশ্চয়তা দেয় ইউরোপের চারটি দেশ। বেলজিয়াম, ফ্রান্স, রোমানিয়া এবং যুগোস্লোভিয়া যোগ দিয়েছিল সেই বিশ্বকাপে। এই চার দলই একটি জাহাজে করে উরুগুয়ের উদ্দেশে পাড়ি দিয়েছিল। আটলান্টিক পেরিয়ে লাতিন আমেরিকায় পৌঁছতে অনেকটাই বেশি সময় লেগেছিল তাঁদের। যার জেরে বিশ্বকাপ পূর্ববর্তী অনুশীলন করতে পারেননি ওই চার দেশের ফুটবলাররা।

 

প্রতিযোগিতার শুরু থেকেই ফেভারিট ছিল উরুগুয়ে। গত দুই অলিম্পিকে সোনা জিতেছিল উরুগুয়ে ফুটবল দল। তবে ফাইনাল ম্যাচে আর্জেন্টিনার সঙ্গে উরুগুয়ে লড়াই হয়েছিল হাড্ডাহাড্ডি। সেই ম্যাচ দেখতে প্রচুর আর্জেন্টিনার সমর্থক ভিড় জমিয়েছিলন উরুগুয়েতে। সেই ম্যাচে প্রথমে গোল করেও হাফ টাইমে ২-১ গোলে পিছিয়ে পড়েছিল উরুগুয়ে। যদিও চাপের মধ্য়েই ৪-২ গোলে জিতে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হয় উরুগুয়ে।

 

তবে ওই বিশ্বকাপ ফুটবল বিশ্বের অনেক প্রতিভাবানকে চিনিয়ে দিয়েছিল। আমেরিকা, যুগোস্লোভিয়ার মতো দল সেমিফাইনালে পৌঁছে চমক দিয়েছিল। সেই বিশ্বকাপে হ্যাটট্রিক করেন আর্জেন্টিনার গুইলারমো স্ট্যাবিলে। সেটিই ছিল বিশ্বকাপের প্রথম হ্যাটট্রিক। ওই বিশ্বকাপে গোল্ডেন বুট পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। তবে প্রথম বিশ্বকাপর ইউরোপের অনেক নামকরা দেশ অংশ নেয়নি। তাঁদের তারকা ফুটবলারদের খেলা দেখার সুযোগ হয়নি। পাশাপাশি ফাইনালে ঘরের মাঠে আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়দের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল উরুগুয়ের সমর্থকদের বিরুদ্ধে। সব মিলিয়ে প্রথম বিশ্বকাপের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে না জানা ইতিহাস।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.