ফাইনালে ভারতকে চান হেইডেন

202

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়ার দ্বারপ্রান্তে চলে গিয়েছিল যেই পাকিস্তান, সেই পাকিস্তানই এখন বিশ্বকাপ জয়ের দ্বারপ্রান্তে চলে গিয়েছে, অবিশ্বাস্যই বটে! ১৩ তারিখের ফাইনালে বাজিমাত করতে পারলেই দ্বিতীয়বারের মত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জিতবে পাকিস্তান।

আজ (৯ নভেম্বর) সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে প্রথম সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামে পাকিস্তান। টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নামা কিউইদেরকে শুরু থেকেই বেশ চাপে রেখেছিল পাকিস্তান। পাক বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনে খাবি খাচ্ছিলেন কিউই ব্যাটাররা। পরে ড্যারেল মিচেলের ফিফটির সুবাদে ১৫২ রানের লড়াকু পুঁজি পায় নিউজিল্যান্ড।

তবে সেই লড়াকু পুঁজি যথেষ্ট ছিল না জয়ের জন্য। ওপেনিং জুটিতেই পাকিস্তানকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন বাবর আজম এবং মোহাম্মদ রিজওয়ান। দুজনের ১০৫ রানের বিস্ফোরক জুটির ফলে ম্যাচ জয়ের পথে অনেকটাই এগিয়ে যায় পাকিস্তান। ফিফটির দেখা পেয়েছেন দুজনই। শেষ দিকে মোহাম্মদ হারিস এবং শান মাসুদ মিলে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন পাকিস্তানকে। ৭ উইকেটের অনায়াস জয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে পাকিস্তান।

ফাইনাল নিশ্চিত করার পরই বড় হুংকার দিয়ে রেখেছেন পাকিস্তান দলের মেন্টর ম্যাথু হেইডেন। নিজেদের সেরা খেলাটা ফাইনালের জন্যই জমিয়ে রেখেছে পাকিস্তান – বিশ্বাস হেইডেনের। ম্যাচশেষে তিনি জানান, ‘এই রাতটা বিশেষ কিছু। আমাদের ফাস্ট বোলিং আক্রমণ দারুণ কাজ করেছে। আমি মনে করি না, আমরা নিজেদের সেরাটা এখনো দেখেছি। যেটা সম্ভবত সেই ভয়ংকর রূপ, যা ফাইনালে যারা আমাদের মুখোমুখি হবে তাদের জন্য। মেলবোর্নের উইকেট ভালো এবং ব্যাটিং সহায়ক হতে পারে। স্বপ্নটা এখন আকাশছোঁয়া। দারুণ কোনো কিছুকে কখনোই দমিয়ে রাখা যায় না। এই দুজন (বাবর-রিজওয়ান) কয়েক বছর ধরে এটা করে আসছে।’

এছাড়া শিষ্যদেরকে ব্যাপক প্রশংসায় ভাসিয়ে হেইডেন বলেন, ‘হারিস নেটে সব বোলারকে পিটিয়েছে। বোলারদের এই উইকেটে মানিয়ে নিতে হয়েছে এবং মন্থর বোলিং করতে হয়েছে। তারা বেশ ভালো করেছে। হারিস রউফ ধারাবাহিকভাবে প্রায় ১৫০ কিলোমিটার গতিতে বল করেছে। শাদাব একজন দারুণ লড়াকু খেলোয়াড়। নিজেদের দিনে তারা অপ্রতিরোধ্য।’

ফাইনালে প্রতিপক্ষ হিসেবে ভারতকে চান – সেটিও জানিয়ে দিয়েছেন হেইডেন, ‘আমি ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে খেলতে চাই। কারণ, অনেক বেশি দর্শকের উপস্থিতি। সেটা অকল্পনীয় ব্যাপার হবে।’

আগামীকাল (১০ নভেম্বর) দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড এবং ভারত। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায়। এই ম্যাচের জয়ী দল আগামী ১৩ নভেম্বর শিরোপার লড়াইয়ে মাঠে নামবে পাকিস্তানের বিপক্ষে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.