ফাইনাল সেরা রাজাপাকসে, টুর্নামেন্ট সেরা হাসারাঙ্গা

136

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

একজন টুর্নামেন্টে দলের হয়ে সবচেয়ে বেশি রান করেছেন, ফাইনালে খেলেছেন অবিস্মরণীয় ইনিংস। আরেকজন নিয়েছেন দলের সবচেয়ে বেশি উইকেট, গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ব্যাট হাতে দেখিয়েছেন ঝাঁজ। এশিয়া কাপের ফাইনালে শ্রীলঙ্কার দুই নায়ক ভানুকা রাজাপাকসে ও ভানিন্দু হাসারাঙ্গাই পেয়েছেন ম্যাচ ও টুর্নামেন্ট সেরার স্বীকৃতি।

৫৮ রানে ৫ উইকেট পড়ার পরিস্থিতিতে থেকে দলকে টেনে ৪৫ বলে অপরাজিত ৭১ করে ম্যাচ সেরা হয়েছেন রাজাপাকসে। ২১ বলে ৩৬ রানের ইনিংস খেলা হাসারাঙ্গা বল হাতে নিয়েছেন ২৭ রানে ৩ উইকেট।

হাসারাঙ্গা পুরো টুর্নামেন্টে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৯ উইকেট নিয়েছেন গড় ৭.৩৬ রান দিয়ে। ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ ফেজে মোড় ঘুরিয়ে দেয়া বল করে আলো কাড়া হাসারাঙ্গাকে দেয়া হয়েছে টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার।

টি-টোয়েন্টিতে বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে নয়ে থাকা হাসারাঙ্গা এই সংস্করণে ব্যাট হাতে কতটা কার্যকর তার প্রমাণ দিয়েছেন আরেকবার। আফগানিস্তানের বিপক্ষে রান তাড়ায় ৯ বলে অপরাজিত ১৬, পাকিস্তানের বিপক্ষে সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে রান তাড়ায় ৩ বল ১০ করে রাখেন ভূমিকা। ফাইনালের জন্য তিনি তুলে রেখেছিলেন সেরাটা।

উপরের দিকের ব্যাটাররা ভালো করায় গোটা টুর্নামেন্টে ব্যাট হাতে নিজেকে মেলে ধরার তেমন সুযোগ ছিল না তার। ফাইনালে সুযোগ পেয়েই তা কাজে লাগান। ভীষণ চাপের মধ্যে খেলেন আগ্রাসী ইনিংস। তার অ্যাপ্রোচেই মোড় ঘুরে যায়। আইপিএলে তার এত কদর কেন সেটা আরেকবার পরিষ্কার হয়েছে।

রাজাপাকসে গোটা আসরেই শ্রীলঙ্কার ব্যাটিংয়ের প্রাণ ভোমরা। ৬ ম্যাচে ৪৭.৭৫ গড়ে তুলেন ১৯১ রান। সবচেয়ে বড় কথা এই রান আনতে তার স্ট্রাইকরেট ছিল ১৪৯.২১। এক পাশে উইকেট পড়লেও আড়ষ্ট হয়ে না থেকে বাউন্ডারি বের করেছেন, দলের রানের চাকা সচল রেখে গেছেন এই বাঁহাতি। ফাইনালে ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা ইনিংস খেলে তিনি করলেন বাজিমাত।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.