ফুটবলের প্রতি আরব দুনিয়ার ভালবাসা দেখাবে কাতার বিশ্বকাপ, মত নাদিয়ার

104

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Qatar World Cup 2022: আফগানিস্তানে জন্ম নাদিয়ার। তবে ইউরোপের মহিলা ক্লাব ফুটবলে বেশ পরিচিত মুখ তিনি। বর্তমানে ম্যাঞ্চেস্টার সিটিতে খেলেছেন তিনি।

দোহা: মধ্যপ্রাচ্য়ে এই প্রথম বসছে ফুটবল বিশ্বকাপের আসর। স্বাভাবিক ভাবে তা নিয়ে উন্মাদনাও রয়েছে চরমে। এক মাসের মধ্যে সারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নাগরিকরা এসে ভিড় করবেন কাতারে। এই বিশ্বকাপ ফুটবলের প্রতি আরব দুনিয়ার ভালবাসাকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরবেন বলে মনে করেন ফুটবলার নাদিয়া নাদিম। আফগানিস্তানে জন্ম নাদিয়ার। তবে ইউরোপের মহিলা ক্লাব ফুটবলে বেশ পরিচিত মুখ তিনি। বর্তমানে ম্যাঞ্চেস্টার সিটিতে খেলেছেন তিনি। ডেনমার্কের জাতীয় দলে খেলেন।

৩৪ বছরের নাদিয়া মনে করেন ফুটবল সকলের। তিনি বলেছেন, “এই এলাকা ফুটবলকে কী ভাবে তুলে ধরে তা দেখতে আমি খুব উৎসাহিত। সর্বোচ্চ মানের ফুটবলের ক্ষেত্রে এটা নতুন অভিজ্ঞতাও। এত বড় মাপের প্রতিযোগিতা যেখানে সমগ্র বিশ্ব এক জায়গায় এক মাসের জন্য একত্রিত হবে। যেথানে ধর্ম, জাতি, সংস্কৃতির ভেদাভেদ ঘুচে সবাই ফুটবলে মেতে উঠবে। এটাই খেলার নির্যাস। মধ্যপ্রাচ্যে বিশ্বকাপ দেখতে আমিও মুখিয়ে আছি। নতুন অভিজ্ঞতা হবে।”

আফগানিস্তানের নাদিয়ার যখন জন্ম হয়েছিল তখন তালিবানের শাসন ছিল সেখানে। মাত্র ১২ বছর বয়সে দেশ ছেড়ে ডেনমার্কে আশ্রয় নিয়েছিল নাদিয়ার পরিবার। সেখানেই নাদিয়ার ফুটবল প্রতিভা নজরে আসে। এর পর ইউরোপ এবং আমেরিকার একাধিক ক্লাবে খেলেছেন তিনি। সেই তালিকায় রয়েছে ম্য়াঞ্চেস্টার সিটি এবং পিএসজি-র মতো ক্লাবও। ইউনেস্কোর গুডউইল অ্যাম্বাসাডরও নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। নিজের ফুটবল খেলা নিয়ে নাদিয়া বলেছেন, “আমি ফুটবল খেলি কারণ আমি খেলতে ভালবাসি। এই খেলার প্রতি টানই এর প্রধান কারণ। এই খেলা আমাকে জীবন দিয়েছে। সৎভাবে বলতে চাই এই খেলা আমাকে জীবনের শিক্ষা দিয়েছে। আজ আমি যা, তা সম্ভব হয়েছে ফুটবলের জন্য়ই।”

কাতার বিশ্বকাপে ডেনমার্কের খেলার উপর তীক্ষ্ণ নজর থাকবে নাদিয়ার। গ্রুপ-ডিতে ডেনমার্কের সঙ্গে রয়েছে গতবারের চ্য়াম্পিয়ন ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া এবং তিউনিশিয়া। কাতারে ডেনমার্কের সফল হওয়ার সম্ভাবনাও দেখছেন তিনি।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.