বিশ্বকাপের সময় রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধ রাখার আর্জি ফিফা প্রেসিডেন্টের

381

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

কাতারে বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানালেন ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফ্যান্টিনো। তিনি জানিয়েছেন, যুদ্ধের বদলে সমাধানসূত্র খুঁজে বের করার জন্য সবপক্ষের কাছেই বিশ্বকাপ ইতিবাচক অনুষ্ঠান হয়ে উঠতে পারে। ইন্দোনেশিয়ার বালি দ্বীপে জি ২০ গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির প্রতিনিধিদের মধ্যাহ্নভোজে যোগ দেন ফিফা প্রেসিডেন্ট। সেখানেই তিনি বলেন, বিশ্বকাপ ফুটবল সারা বিশ্বেই শান্তি প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে বিশেষ সদর্থক ভূমিকা পালন করতে পারে। ফিফা প্রেসিডেন্টের বার্তা, ‘আপনাদের সবার কাছে আমার আর্জি, বিশ্বকাপের সময় একমাসের জন্য সাময়িক যুদ্ধবিরতির ব্যবস্থা করা যায় কি না, সেটা ভেবে দেখুন। সেটা যদি কোনওভাবেই সম্ভব না হয়, তাহলে অন্তত সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে কিছু ব্যবস্থা নিন। যুদ্ধে যাতে নিরীহ মানুষের ক্ষতি না হয়, সেটা নিশ্চিত করার চেষ্টা করুন। শান্তির প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে যাতে ফের আলোচনা শুরু করা যায়, সেই পদক্ষেপ নিন।’

জি ২০ সম্মেলনে যোগ দেওয়া রাষ্ট্রনেতাদের উদ্দেশে ফিফা প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আপনারা সবাই বিশ্বনেতা। আপনাদের ইতিহাসের ধারা প্রভাবিত করার ক্ষমতা আছে। ফুটবল ও বিশ্বকাপ আপনাদের এবং সারা বিশ্বকে শান্তি প্রতিষ্ঠার অনন্য মঞ্চ উপহার দিচ্ছে। আপনারা দয়া করে সেই মঞ্চকে ব্যবহার করুন। আশা করি বিশ্বকাপ সারা বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে পারবে।’

২০ নভেম্বর থেকে কাতারে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবল। এই প্রথম পশ্চিম এশিয়ায় বিশ্বকাপ হচ্ছে। এই নিয়ে দ্বিতীয়বার এশিয়ায় বিশ্বকাপ হচ্ছে। যুদ্ধের জন্য অতীতে বিশ্বকাপ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের জন্য ১৯৪২ ও ১৯৪৬ সালে বিশ্বকাপ আয়োজন করা যায়নি। অতীতে দেখা গিয়েছে, আফ্রিকার একাধিক দেশে বিশ্বকাপের জন্য গৃহযুদ্ধ থামিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিশ্বকাপ ফুটবলের মতো প্রতিযোগিতার এমনই আকর্ষণ। সে কথাই মনে করিয়ে দিয়েছেন ফিফা প্রেসিডেন্ট।

২০১৮ সালে গত বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ ছিল রাশিয়া। সেই প্রতিযোগিতার কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছে গিয়েছিল রুশ দল। কিন্তু ইউক্রেন আক্রমণ করার জন্য ফিফা সহ বিভিন্ন ক্রীড়া নিয়ামক সংস্থা রাশিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। ফলে কাতার বিশ্বকাপে নেই রাশিয়া। ইউক্রেন যোগ্যতা অর্জন পর্বে ভালই এগোচ্ছিল। কিন্তু প্লে-অফে ওয়েলশের কাছে হেরে যাওয়ায় এবারের বিশ্বকাপে নেই যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি। এখনও পর্যন্ত একবারই বিশ্বকাপ ফুটবলের মূলপর্বে খেলেছে ইউক্রেন। ২০০৬ সালে জার্মানিতে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছে গিয়েছিল ইউক্রেন। তারপর আর তাদের পক্ষে বিশ্বকাপের মূলপর্বের যোগ্যতা অর্জন করা সম্ভব হয়নি।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.