শান্ত কেন বিশ্বকাপ দলে!

136

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

২০১৯ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক নাজমুল হোসেন শান্তর। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত এই ফরম্যাটে ৯ ম্যাচ খেলে মোটে ১৪৮ রান করতে পেরেছেন এই ক্রিকেটার।

সাড়ে ১৮ গড়ে রান করেছেন তাও মাত্র ১০৪ স্ট্রাইক রেটে। সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজের তিন ম্যাচেও রান করেছেন ৩৭, ১৯* এবং ১৬ রান। এই পারফরম্যান্সের কারণে এশিয়া কাপের দল থেকে বাদ পড়েছেন এই ব্যাটসম্যান।

অথচ কোনো প্রকার পারফরম্যান্স ছাড়াই এবার বিশ্বকাপ দলেই জায়গা করে নিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ফলে প্রশ্ন উঠেছে, এই ক্রিকেটার কেন বিশ্বকাপ দলে? এর উত্তরে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু জানিয়েছেন, ব্যাকআপ ওপেনার ভাবনায় দলে সুযোগ পেয়েছেন এই ক্রিকেটার।

প্রধান নির্বাচকের ভাষ্যে, শান্তকে নিয়ে অনেক কিছু আলোচনা হয়েছে। অনেক অ্যানালাইসিস করা হয়েছে ব্যাকআপ একটা ওপেনার হিসেবে। সবাই মিলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখানে কেউ দ্বিমত করেনি। সেই জন্য শান্তকে যুক্ত করা হয়েছে।

আন্তর্জাতিক ফরম্যাটে টি-টোয়েন্টিতে এত বিবর্ণ পারফরম্যান্সের পরও কেন বিশ্বকাপের দলে, এই প্রশ্নটা তবুও থেকে যায়। এর উত্তরে প্রধান নির্বাচক জানিয়েছেন, ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগের পারফরম্যান্সের জন্য টিকে গেছেন শান্ত।

এখন পর্যন্ত ঘরোয়া টি-টোয়েন্টিতে ৯৫ ম্যাচ খেলে ২টি শতকের সঙ্গে ৬টি ফিফটি রয়েছে শান্তর। এই দুই শতক বিবেচনায় বিশ্বকাপের দলে ঠাঁই হয়েছে শান্তর।

মিনহাজুল আবেদীনের ভাষ্যে, আন্তর্জাতিক মঞ্চে এই ফরম্যাটে তো আমরা সবাই স্ট্রাগল করছি।

কিন্তু আপনি বিপিএলের রেকর্ডটা দেখেন শান্তর। আমাদের ডমেস্টিকে যে কয়জন ক্রিকেটার রয়েছে, সেখানে তার পারফরম্যান্স কিন্তু খারাপ না। ঘরোয়া ক্রিকেটে দুটি সেঞ্চুরি রয়েছে এই ক্রিকেটারের। ডমেস্টিক রেকর্ড কিন্তু ওর খুব একটা খারাপ না।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.