শেষ ষোলোতে চোখ রাখা স্পেনের সামনে জার্মানির টিকে থাকার লড়াই

335

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

২০১৪ সালে বিশ্বকাপ জেতার চার বছর পর রাশিয়ায় জার্মানির গ্রুপ পর্বে বিদায় কেউ চিন্তাই করেছিল না। এবারও বিশ্বকাপ শুরুর আগে এমন কিছু কল্পনায় আনেননি জার্মান ফুটবল ভক্তরা।

একদিকে বিশ্বকাপের টানা দ্বিতীয় আসরে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায়ের আশঙ্কা, অন্যদিকে বাঁচামরার ম্যাচে প্রতিপক্ষ স্পেন, যারা ৭-০ গোলে কোস্টারিকাকে উড়িয়ে শুরু করেছে অভিযান। নিঃসন্দেহে বুকে ধুকপুক শুরু হয়ে গেছে জার্মানদের। ‘ই’ গ্রুপে টিকে থাকার লড়াইয়ে রোববার রাত ১টায় আল বায়াত স্টেডিয়ামে নামছে জার্মানি। আর স্পেন এই ম্যাচ খেলবে শেষ ষোলোয় চোখ রেখে।

সমান তিন পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ টেবিলের প্রথম দুটি স্থানে স্পেন ও জাপান। জাপান যদি কোস্টারিকার বিপক্ষে জেতে বা ড্র করে তাহলে জার্মানিকে হারাতে পারলে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করবে স্পেন।

জাপানের কাছে ২-১ গোলের অপ্রত্যাশিত হার দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করা জার্মানি কিন্তু জয় ভিন্ন অন্য চিন্তা করছে না। সব ধরনের প্রতিযোগিতায় গত ৯ ম্যাচে কেবল দুটি জেতা জার্মানি স্পেনের বিপক্ষে চাপে আছে স্বীকার করেছেন কোচ ফ্লিক। তবে ঘুরে দাঁড়ানোর আশাবাদ ব্যক্ত করলেন তিনি, ‘আমাদের একটি দল আছে যারা সামর্থ্যবান। আমরা খুব ইতিবাচক। আমাদের সাহস নিয়ে মাঠে নামতে হবে এবং স্পেনের বিপক্ষে আমাদের সামর্থ্যের ওপর বিশ্বাস রাখতে হবে।’

কোস্টারিকার বিপক্ষে গোল উৎসব করা স্পেন চারবারের চ্যাম্পিয়নদের মোটেও খাটো করছে না। কোচ লুইস এনরিকে বললেন, ‘তারা বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন, তাদের জার্সিতে আপনি চারটি তারকা দেখতে পাবেন। তাদের খেলোয়াড়দের প্রতি আমার যথেষ্ট সম্মান আছে, তারা বিশ্বমানের। তাদের ইতিহাসও দেখার মতো।’

অবশ্য জার্মানির বিপক্ষে ইতিহাস স্পেনের পক্ষে কথা বলে। ১৯ বছরের মধ্যে স্প্যানিশদের মুখোমুখি হয়ে শেষ সাত ম্যাচে কেবল একটি জিতেছে জার্মানরা, ২০১৪ সালের নভেম্বরে এক প্রীতি ম্যাচে ১-০ গোলে। তবে ১৯৮৮ সালের ইউরোতে ২-০ গোলে জেতার পর প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে লা রোজাদের বিপক্ষে আর কোনও জয় নেই চারবারের চ্যাম্পিয়নদের। এবার সেই গেরো কাটাতে না পারলে দেশে ফেরার বিমান ধরতে হবে অনেক আগেই।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.