সাকিব কেন এসেও খেললেন না, জানালেন জালাল ইউনুস

125

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

পাকিস্তানের বিপক্ষে দলের সেরা খেলোয়াড় সাকিব আল হাসানকে পায়নি বাংলাদেশ।সাকিবের অনুপস্থিতিতে নেতৃত্ব দিয়েছেন উইকেটকিপার-ব্যাটার নুরুল হাসান সোহান।

ম্যাচটিতে সাকিবের খেলা নিয়ে শুরু থেকেই অনিশ্চয়তা ছিল। তবে ম্যাচ শুরুর একদিন আগে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে পা রাখেন বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টির অধিনায়ক। তাকে পেয়ে গোটা দলও চাঙ্গা হয়ে ওঠে।

দলের স্পিন-অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ বলেন, অধিনায়ক সাকিব ফেরায় টিম এখন পরিপূর্ণ।আর সেই সাকিবকেই দেখা গেল না মাঠে! সাকিব এসেও কেন খেলেননি এমন প্রশ্ন উঠেছে,

জবাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস জানালেন, মূলত: সাকিবকে খেলানো হয়নি। এর অন্যতম কারণ তার ভ্রমণে ক্লান্তি।

বাংলাদেশ দল যখন আরব আমিরাতে তখন সাকিব খেলছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিপিএলে। দল সূত্র জানিয়েছে, সিপিএল শেষ করার পরও সঙ্গে সঙ্গে নিউজিল্যান্ডে চলে আসেননি সাকিব। পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে চলে যান নিউইয়র্কে। সেখান থেকে ক্রাইস্টচার্চে ফিরতে ফিরতে বিলম্ব হয়ে যায় বাংলাদেশ অধিনায়কের। যার ফলে তিনি নিউজিল্যান্ড পৌঁছান বৃহস্পতিবার।

টিম ম্যানেজমেন্টের মনে হয়েছে, সাকিব খেললেও ক্লান্তির কারণে কোনো ‘ইমপ্যাক্ট’ হয়তো খেলায় ফেলতে পারবেন না। কাজেই তাকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। সে কথাই জানিয়ে গণমাধ্যমকে জালাল ইউনুস বলেন, ‘সাকিব খেলতে চায়নি এটা ঠিক নয়, মূলতঃ তাকে খেলানো হয়নি। আগেরদিন দুপুরের পর এসে পৌঁছায় সাকিব। দীর্ঘ ভ্রমণের কারণে টিম ম্যানেজমেন্ট মনে করেছে সাকিব খুবই ক্লান্ত। এ পরিস্থিতিতে তাকে মাঠে নামানো ঠিক হবে না। যার ফলে তাকে খেলানো হয়নি।’

উল্লেখ্য, বিশ্বকাপের দল ঘোষণার পর থেকে এখনও পর্যন্ত বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন সোহানই। আরব আমিরাতে দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। ওই সিরিজেও সাকিব ছিলেন না। নেতৃত্ব পড়েছিল সোহানের কাঁধেই।

সাকিববিহীন ম্যাচে ২১ রানে হেরে গেছে বাংলাদেশ। প্রথমে ব্যাট করে ৫ উইকেটে ১৬৭ রান তোলে বাবর আজমের দল। জবাবে ৮ উইকেটে ১৪৬ রানে থামে টাইগাররা।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.