লিভিংস্টোনের জোড়া রেকর্ডেও পাকিস্তানের কাছে ইংলিশদের হার

183

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

নটিংহ্যামে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে শুক্রবার (১৬ জুলাই) ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে রান উৎসবে মাতলেন দুই দলের ব্যাটসম্যানরা। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের ফিফটিতে ৬ উইকেটে ২৩২ রানের বড় সংগ্রহ গড়ে পাকিস্তান।

লিভিংস্টোনের সেঞ্চুরিতে লম্বা সময় আশা বাঁচিয়ে রাখা ইংল্যান্ড গুটিয়ে যায় ২০১ রানে। যার ফলে ৩১ রানে জিতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজে এগিয়ে গেছে পাকিস্তান।

২ রানে জীবন পেয়ে বিধ্বংসী ইনিংস খেলে দেশের হয়ে দ্রুততম ফিফটি ও সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়লেন লিয়াম লিভিংস্টোন। ১৭ বলে পঞ্চাশ স্পর্শ করেন লিভিংস্টোন। ইংল্যান্ডের হয়ে আগের দ্রুততম ফিফটি ছিল ওয়েন মর্গ্যানের। ২০১৯ সালে নেপিয়ারে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান ফিফটি করেন ২১ বলে। ৪২ বলে সেঞ্চুরি করে লিভিংস্টোন ভাঙ্গেন ডেভিড মালানের রেকর্ড। নেপিয়ারের ওই ম্যাচেই ৪৮ বলে তিন অঙ্ক ছুঁয়ে ইংল্যান্ডের হয়ে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছিলেন এই বাঁহাতি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান।

ট্রেন্ট ব্রিজে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে পাকিস্তানকে দারুণ সূচনা এনে দেন বাবর ও রিজওয়ান। প্রথম ৬ ওভারে আসে ৪৯ রান। এরপর তারা মনোযোগ দেন রানের গতি বাড়ানোর দিকে। ৩৪ বলে পঞ্চাশ স্পর্শ করেন রিজওয়ান, এর আগেই ৩৫ বলে ফিফটি হয়ে যায় বাবরের। ৮৭ বলে পাকিস্তানের দলীয় রান ১৫০ হতেই সাজঘরে ফিরেন রিজওয়ান। আট চার ও এক ছক্কায় এই কিপার-ব্যাটসম্যান ৪১ বলে খেলা ৬৩ রান করেন। এরপর দুই ছক্কা ও এক চারে ৭ বলে ১৯ রান করে ফিরেন সোহেব মাকসুদ। সেঞ্চুরির আশা জাগিয়ে ৮৫ রানে থামেন বাবর। তার ৪৯ বলের অধিনায়কোচিত ইনিংস সাজানো তিন ছক্কা ও আট চারে। ৮ বলে ২৬ রানের খুনে ইনিংস খেলেন ফখর জামান। তিন চার ও এক ছক্কায় ১০ বলে ২৪ রান করেন হাফিজ।
২৩৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে এক প্রান্তে ঝড় তোলেন জেসন রয়। অন্য প্রান্তে দ্রুত ফিরেন মালান, জনি বেয়ারস্টো ও মইন আলি। তিন ছক্কা ও দুই চারে ১৩ বলে ৩২ রান করা রয়কে থামান শাদাব খান। হারিস রউফের বলে ২ রানে মোহাম্মদ হাসনাইনকে ক্যাচ দিয়েও ছক্কা পেয়ে যান লিভিংস্টোন। তারপর থেকে ব্যাট হাতে তাণ্ডব চালান এই অলরাউন্ডার।

এক ছক্কায় ১৬ রান করে ফিরেন মর্গ্যান। ১১ বলে কোনো বাউন্ডারি ছাড়া ১০ রান করেন লুইস গ্রেগরি। শেষের দিকে ১৬ রানের ইনিংস ব্যবধান কিছুটা কমান ডেভিড উইলি। দারুণ বোলিংয়ে ৪ ওভারে ২৮ রান দিয়ে একটি উইকেট নেন পেসার হাসনাইন। ৩ উইকেট নেন পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি। তিন উইকেট নেন লেগ স্পিানার শাদাব খান। আগামীকাল রবিবার (১৮ জুলাই) লিডসে হবে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.